প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় নিয়োগ ২০২৪ [ Probashi Kallyan Montronaloy ]

সম্প্রতি প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি Probashi Kallyan Montronaloy Job Circular 2023 প্রকাশ করা হয়েছে। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় হচ্ছে বাংলাদেশ সরকারের একটি মন্ত্রণালয়। এই মন্ত্রণালয়ের উদ্দেশ্য হলো প্রবাসী কর্মীদের কল্যাণ নিশ্চিত করা এবং বৈদেশিক কর্মসংস্থানের সম্প্রসারণ।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২৩

প্রতিষ্ঠানের নামঃ   প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়
চাকরির ক্যাটাগরিঃ সরকারি চাকরি
বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩
পদের সংখ্যা ৭৪ জন
বয়স সর্বোচ্চ ৩২ বছর
শিক্ষাগত যোগ্যতা SSC, HSC, Honors
আবেদনের মাধ্যম অনলাইন
আবেদন ফি ২০০,৩০০,৫০০
আবেদন শুরু ১২ অক্টোবর ২০২৩
আবেদন শেষ ০১ নভেম্বর ২০২৩
ওয়েবসাইট http://www.probashi.gov.bd

সরকারি বেসরকারি সব ধরনের চাকরির খবর সবার আগে পাবেন newjobscircular.com ওয়েবসাইটে। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়  জব সার্কুলার সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য দেখতে নিচের ছবিটি লক্ষ্য করুনঃ বিস্তারিত তথ্য দেখুন নিচের ছবিতে।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় নিয়োগ ২০২৩

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে জনবল নিয়োগের লক্ষ্যে প্রকৃত বাংলাদেশী নাগরিকদের নিকট হতে আবেদন আহ্বান করা যাচ্ছে।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় নিয়োগ সার্কুলার ইমেজ ২০২৩

Source: ObserverBD, 30 November 2023

Application Deadline: 01 November 2023

আবেদনের নিয়ম ও শর্ত

  1. মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান/পোষ্য প্রার্থীদের ক্ষেত্রে অবশ্যই মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সন্ত্রণালয়ের সনদপত্রের গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত অনুলিপি আবেদনের সাথে সংযুক্ত করতে হবে।
  2. উপজাতীয় প্রার্থীদের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক/উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কর্তৃক প্রদত্ত উপজাতীয় বিষয়ক সনদ পত্রের সত্যায়িত অনুলিপি সংযুক্ত করতে হবে।
  3. চাকুরীরত প্রার্থীদের অবশ্যই যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করতে হৃবে।মূল আবেদন পত্র নির্ধারিত তারিখের মধ্যে অবশ্যই পৌছাতে হবে।
  4. লিখিত ও ব্যবহারিক পরীক্ষা এবং সাক্ষাৎকারে অংশগ্রহণের জন্য কোন প্রকার টিএ/ডিএ প্রদান করা হবে না।
  5. প্রাথমিক বাছাইয়ের পর কর্তৃপক্ষের বিবেচনায় কেবলমাত্র উপযুক্ত প্রার্থীগণকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য পত্র/ই-মেইল/ মোবাইলের মাধ্যমে জানানো হবে।
  6. ত্রুটি পূর্ণ ৰা অসম্পূর্ণ দরখাস্ত বাতিল বলে গণ্য করা হবে।এজন্য কোন কারণব্যাখ্যা প্রদান করতে কর্তৃপক্ষ বাধ্য নয়।
  7. নিয়োগ প্রাপ্তদের যোগদানের পূর্বে নির্ধারিত ছকে চুক্তি পত্রে স্বাক্ষর করতে হবে।চুক্তির মেয়াদ শেষে চুক্তিপত্র অব্যাহতিপত্র হিসাবে গণ্য করা হবে।
  8.  নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের কারণে কর্তৃপক্ষ পরীক্ষা গ্রহণ করতে অথবা প্রার্থীত পদে নিয়োগ প্রদান করতে বাধ্য থাকবে না।
  9. বিজ্ঞপ্তিতে বর্ণিত পদে সম্পূর্ণ অস্থায়ীভিস্তিতে শুধুমাত্র প্রকল্পের মেয়াদের জন্য নিয়োগ করা হবে প্রকল্পের মেয়াদ শেষে সংশ্লিষ্ট কর্মচারীর পদ স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিলুপ্ত হবে এবং চাকরির অবসান হবে।এ জন্য আলাদাভাবে চাকরিছ্যুতির কোন নোটিশ বা পত্র দেয়া হবে না।
  10. কোটা সংক্রান্ত সর্বশেষ সরকারি বিধিমালা অনুসরণ করা হবে;
  11. সর্বক্ষেত্রে যথাযথ কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে কোন প্রকার কারণ দর্শাতে বাধ্য থাকবে না।

প্রতিষ্ঠান পরিচিতি

বৈদেশিক কর্মসংস্থান বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বিদেশে কর্মসংস্থান শুধুমাত্র দেশের বেকারত্ব হ্রাসই করে নাএকই সাথে বিদেশে কর্মরত প্রবাসীদের প্রেরণকৃত রেমিটেন্স দেশের অর্থনীতির চাকাকে সচল রাখছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশের অর্থনীতি পুনরুদ্ধার করার লক্ষ্যে কূটনৈতিক তৎপরতার মাধ্যমে বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও কর্মী প্রেরণ বিষয়ে মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশসমূহের সাথে সমঝোতা সৃষ্টি হয়। তারই ধারাবাহিকতায় সত্তর দশকের মাঝামাঝি সময় থেকে মধ্যপ্রাচ্যের দেশসমূহে বাংলাদেশি কর্মী গমন শুরু হয়।

ভিশনঃ প্রবাসী বাংলাদেশিদের কল্যাণ ও অধিকার নিশ্চিতকরণ এবং বৈদেশিক কর্মসংস্থানের মাধ্যমে দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন।

মিশন

  • প্রবাসী বাংলাদেশিদের কল্যাণ, নিরাপত্তা ও অধিকার নিশ্চিতকরণ এবং তাদের স্বার্থ সংরক্ষণ;
  • নতুন শ্রমবাজার অনুসন্ধান এবং বিদ্যমান শ্রমবাজার সংরক্ষণ ও সম্প্রসারণ;
  • মানব সম্পদ উন্নয়নের মাধ্যমে উন্নত কর্মসংস্থানের সুযোগ বৃদ্ধি করা;
  • অভিবাসন ব্যয় হ্রাসসহ অভিবাসন ব্যবস্থাপনায় শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা;
  • দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে প্রবাসীদের অধিক হারে অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি করা।